মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভূমি উন্নয়ন কর ও বিভিন্ন ফি

ভূমি উন্নয়ন কর/খাজনা কি?

কোন জমি ভোগ দখলের সুবিধা গ্রহণের জন্য সরকারকে প্রতি শতাংশ জমির জন্য প্রতি বছর যে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা প্রদান করতে হয় তাকেই ভূমি উন্নয়ন কর বা খাজনা বলে ৷

খাজনা সংক্রান্ত অধিকার

→খাজনা প্রদান করে দাখিলা গ্রহণের অধিকার ৷
→খাজনা প্রদান করে দাখিলার মাধ্যমে জমির মালিকানা প্রমাণের অধিকার ৷
→যদি কোনো ব্যক্তি খাজনা সংক্রান্ত ব্যাপারের কোন আদেশে অসন্তুষ্ট হন সেক্ষেত্রে আপিলের অধিকার ৷
(১৯৭৬ সালের ভুমি উন্নয়ন কর বিধিমালার ৭ বিধি)
→রেন্ট সার্টিফিকেট মামলা হওয়ার আগে নোটিশ পাবার অধিকার (যেমন ডাকযোগে/প্রকাশ্য স্থানে লটকানোর মাধ্যমে/সংশ্লিষ্ট সম্পত্তির উপর টাঙ্গানোর মাধ্যমে। (১৯৭৬ সালের ভুমি উন্নয়ন কর বিধিমালার ৬ বিধি)
কোন কোন ক্ষেত্রে বিনা খাজনাতে ভোগ দখলের অধিকার:
(১৯৭৬ সালের ভুমি উন্নয়ন কর বিধিমালা)
(ক) ২৫ বিঘার কম জমি থাকলে ৷
(খ) ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষী পর্যায়ে নিজে শারীরিক পরিশ্রম করে হাঁস-মুরগীর খামার/ডেইরী ফার্ম হিসাবে কোন জমি ব্যবহার করলে ৷
(গ) ৫টির কম হস্তচালিত তাঁত যদি কোন জমির উপর অবস্থিত হয় এবং তাঁতগুলি যদি জমির মালিক নিজে শারীরিক পরিশ্রম করে চালায় ৷
(ঘ) যদি কোনো জমি প্রধানত প্রার্থনার স্থান অথবা ধর্মীয় উপসনালয় অথবা সর্ব সাধারণের কবরস্থান/শশ্মান ঘাট হিসাবে ব্যবহার হয়ে থাকে ৷

লঙ্ঘন:

→খাজনা প্রদানের পর দাখিলা/রশিদ প্রদান না করা ৷
→খাজনা প্রদান করে দাখিলার মাধ্যমে জমির মালিকানা প্রমাণে বাধা দেওয়া ৷
→২৫ বিঘার কম জমি থাকা স্বত্বেও খাজনা দাবী করা ৷
→খাজনা মওকুফের জন্য দরখাস্ত গ্রহণ না করা ।
→রেন্ট সার্টিফিকেট মামলা হওয়ার আগে নোটিশ প্রদান করা ৷
সংশ্লিষ্ট প্রতিকার:

→আপিলের মাধ্যমে ৷
প্রতিকারের জন্য কোথায় যেতে হবে?

→খাজনা প্রদান সংক্রান্ত কোনো ব্যাপারে সমস্যা সৃষ্টি হলে থানা রাজস্ব কর্মকর্তা তথা সহকারী ভুমি কমিশনারের অফিসে যোগাযোগ করতে হবে ৷
(১৯৭৬ সালের ভুমি উন্নয়ন কর বিধিমালার ৭ বিধি)

আপিলের সুযোগ আছে কি?

→আছে ৷
খাজনা বা ভুমি উন্নয়ন কর সংক্রান্ত কোনো প্রাথমিক দাবী সম্পর্কে কোনো ব্যক্তির বা ভুমি মালিকের কোনো আপত্তি থাকলে আপত্তি দাখিল করা যাবে ৷ (১৯৭৬ সালের ভুমি উন্নয়ন কর বিধিমালার ৭ বিধি)
কোথায় আপত্তি দাখিল করতে হবে?
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) অথবা জেলা প্রশাসক (ডি.সি.) এর নিকট ৷

কতদিনের মধ্যে?

→১৫ দিনের মধ্যে ৷
জেলা প্রশাসকের আদেশে কোনো ব্যক্তি সন্তুষ্ট না হলে সেই আদেশের বিরূদ্ধেও আপিল করা যাবে ৷

আপিলের জন্য কোথায় যেতে হবে?

বিভাগীয় কমিশনারের নিকট

কতদিনের মধ্যে?

→৪৫ দিনের মধ্যে
বিভাগীয় কমিশনারের আদেশে কোন ব্যক্তি সন্তুষ্ট না হলে সেই আদেশের বিরূদ্ধেও আপিল করা যাবে ৷

আপিলের জন্য কোথায় যেতে হবে?

→ভুমি আপিল বোর্ডের নিকট ৷

কতদিনের মধ্যে?

→১৫ দিনের মধ্যে

from: বাংলাদেশের আইন কানুন

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter